মানসিক স্বাস্থ্য সেবায় ‘হেলথ অ্যান্ড ওয়েলনেস’ মেলা

মানসিক স্বাস্থ্য এবং সর্বাঙ্গীণ সুস্বাস্থ্যকে ঘিরে সাজিদা ফাউন্ডেশন ও পুর্নাভা লিমিটেড, ১৫ এপ্রিল, রাজধানীর ব্র্যাক সেন্টারে ‘হেলথ অ্যান্ড ওয়েলনেস ফেয়ার ২০১৭’ আয়োজন করেছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস উপলক্ষে এই আয়োজন, এই বছরের মূল প্রতিপাদ্য বিষয় মানসিক স্বাস্থ্য।

আয়োজনটি সাজিদা ফাউন্ডেশন-এর বনানীতে অবস্থিত মনোসামাজিক কাউন্সিলিং ভবন (সাইকোসোশ্যাল কাউন্সিলিং সেন্টার) ইনার সার্কেল-এ উদ্বোধন হয়, যেটি অভিজ্ঞ কাউন্সিলর ও প্রশিক্ষকদের দ্বারা বিভিন্ন ধরনের মনোসামাজিক কাউন্সিলিং, প্রশিক্ষন ও কর্মশালা দিয়ে থাকে।

জনপ্রিয় মিডিয়া ব্যক্তিত্ব, অভিনয়শিল্পী, কাউন্সিলর, একুশে পদক সম্মাননায় ভূষিত সারা জাকের এবং এশিয়াটিক থ্রিসিক্সটি-এর গ্রুপ অপারেশনস ডাইরেক্টর শ্রিয়া সর্বজয়া মেলাটি উদ্বোধন করেন।

মেলাটিতে ইনার সার্কেল বিভিন্ন ধরনের উদ্ভাবনী ও থেরাপিউটিক মানসিক স্বাস্থ্যের কার্যক্রমের পাশাপাশি, অভিজ্ঞ বক্তাদের আলোচনা, ইয়োগা এবং কবিতা আবৃত্তি পরিবেশনার দিনব্যাপী আয়োজন করে।

সেখানে আনিকা রাব্বানির সাথে একটি ইয়োগা সেশন হয় এবং আত্ম সচেতনতা ও মানসিক স্বাস্থ্যের প্রাথমিক চিকিৎসা বিষয়ক বিভিন্ন ধরনের কর্মশালা ও ইন্টার্যা ক্টিভ সেশন চলে। সেশনটি ডা. মেহতাব খানম, ডা. হেলাল উদ্দিন, ডা. নিসিম জান সাজিদ ও ডা. সাবিনা ফাইয রাশিদ, ডা. আশিক সেলিম, মিস. মনিরা রহমান, রুবাইয়া আহমেদ, ক্যাট্রিমা গ্যাব্রিয়েল পরিচালিত করেন।

এছাড়াও, দর্শনার্থীদের জন্য মেলায় ছিল রিলাক্সেশন কর্নার, আত্ম-সহায়তা কর্নার, আর্টিস্টদের কর্নার এবং মনস্তাত্ত্বিক কর্নার। নিজের মানসিক স্বাস্থ্যের যত্ন নিজেই নিতে রিলাক্সেশন থেরাপি, সাইকো-অ্যারোমা থেরাপিসহ বিভিন্ন ধরনের ইন্টার্যা ক্টিভ কার্যক্রম কর্নারগুলোর মূল আকর্ষণ ছিল। এই মেলায় সাজিদা ফাউন্ডেশন-এর মানসিক ও স্বাস্থ্য সচেতনতা বিষয়ক গবেষণা সেন্টার ইনার সার্কেল-এর পক্ষ থেকে দর্শনার্থীরা বিনামূল্যে মানসিক ও স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সেবা পেয়েছেন।

এই মেলায় অ্যাম্পারস্যান্ড-এর সঞ্চালনায় একটি কবিতা আবৃত্তি বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। শায়ান (ফারজানা ওয়াহিদ), সামির ওবায়েদ ও আরমিন মুসার পরিবেশনায় ‘হিলিং সার্কেল’ নামক একটি কনসার্ট-এর মধ্য দিয়ে দিনব্যাপী মেলাটি শেষ হয়।

সাজিদা ফাউন্ডেশন-এর মেম্বার সাজিদা হুমায়ূন কবির বলেন, ‘মানসিক স্বাস্থ্য, শারীরিক স্বাস্থ্যের মতই গুরুত্বপূর্ণ। যদিও আমাদের দেশে বিষয়টি খুব একতা গুরুত্বের সাথে দেখা হয়না, সাজিদা ফাউন্ডেশন শারীরিক, মানসিক ও সামাজিক সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে একযোগে কাজ করে যাচ্ছে যা এই আয়োজনটির মধ্য দিয়ে প্রতিফলিত হয়েছে। ইনার সার্কেল এর মধ্য দিয়েই তার যাত্রা শুরু করেছে এবং আমরা বিশ্বাস করি, বিভিন্ন ধরনের শ্রমজীবী মানুষ আমাদের বিস্তৃত সেবার মাধ্যমে উপকৃত হবেন।’

প্রযুক্তিকথন/ডেস্ক/

Related posts

Leave a Comment