১০ হাজার এমএএইচ ব্যাটারির স্মার্টফোন নিয়ে অাসছে অকিটেল

স্মার্টফোনের প্রধান বৈশিষ্ট বা কর্মদক্ষতা সম্পূর্ণটাই নির্ভর করে ব্যাটারির শক্তির উপর. স্মার্টফোনের কাজ এতই বেশি যে, তার জন্য যথেষ্ট পরিমান শক্তির প্রয়োজন. তাই ব্যাটারি যতটা শক্তিশালী, তত বেশি ও দীর্ঘক্ষণ কাজ করা যাবে ফোনে. বড় বড় ব্র্যান্ডের স্মার্টফোন ৩০০০-৪০০০এমএএইচ শক্তির ব্যাটারি দিয়ে ফ্ল্যাগশিপ ফোনগুলো বাজারে আনে. বিশেষভাবে হয়তো ৫০০০এমএএইচ শক্তির ব্যাটারি. কিছুদিন আগে জিওনী আনল ৬০২০ শক্তির স্মার্টফোন. এখন পর্যন্ত এটি সর্বোচ্চ শক্তির ব্যাটারির স্মার্টফোন ছিল. এবার এদের সবাইকে ছাপিয়ে চীনের স্মার্টফোন নির্মাতা অকিটেল আনতে চলেছে কে১০০০০ প্রো মডেলের ফোন. তবে স্মার্টফোনটি নিয়ে প্রধান আলোচনার বিষয়, এর ব্যাটারির শক্তি ১০০০০এমএএইচ!

আগামী জুনেই কে১০০০০ এর প্রো মডেলটি বাজারে আসবে. এই স্মার্টফোনটি হাতে থাকা মানে রীতিমতো একটি পাওয়ার ব্যাংক নিয়ে ঘোরা. কিন্তু এই বিশাল শক্তির ব্যাটারি চার্জ করতেও তো অনেক সময় লাগার কথা. সে সমস্যা মাথায় রেখেই এবার ১২ভি/২এ ফ্ল্যাশ চার্জার দেবে অকিটেল. যার মাধ্যমে ব্যাটারি চার্জ হতে সময় লাগবে মাত্র ৩ ঘণ্টা.

স্মার্টফোনটিতে থাকছে ৫.৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে সাথে কর্নিং গরিলা গ্লাসের নিরাপত্তা. মিডিয়াটেক এমটি৬৭৫০টি অক্টা-কোর এসওসি প্রসেসর নতুন মডেলকে আরো শক্তিশালী করবে. তবে জুনে আসার আগেই ফোনটির প্রসেসর আপগ্রেড করে আনা হবে মিডিয়াটেক হেলিও ফটো. র‍্যাম থাকছে ৩ জিবি. অভ্যন্তরীণ স্টোরেজ ৩২ জিবি. ব্যাটারি যেহেতু বেশ শক্তিশালী, তাই এর ওজন ২৯২.৫ গ্রাম.

দাম সম্পর্কে কোনো ধারণা দেওয়া হয়নি. ট্যাগলাইনে বলা হচ্ছে ‘টু বি দ্য কিং’.

প্রযুক্তিকথন/ডেস্ক/

Related posts

Leave a Comment