এইচপির নতুন দুই প্রিন্টার বাজারে

শীর্ষস্থানীয় প্রযুক্তি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এইচপি বাজারে তাদের নতুন দুইটি প্রিন্টার এনেছে। এগুলো ডেস্কজেট জিটি সিরিজের। এই প্রিন্টার গুলো বিশেষত্ব হলো কম খরচে সর্বোচ্চ মানের প্রিন্টিং করা। এ ছাড়াও যারা বাসা বাড়িতে বেশি প্রিন্ট করেন তাদের জন্যও এটি বেশ উপযোগী। এর মডেল দুইটি হলো এইচপি ডেস্কজেট জিটি ৫৮২০ এবং ৫৮১০। যার একটিতে ওয়াইফাই প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। অন্যটিতে নেই।

সোমবার (২৪জুলাই) রাজধানীর একটি হোটেলে প্রিন্টার গুলো উদ্বোধন করেন দেশের বাজারে এইচপি প্রিন্টার পরিবেশন করা প্রতিষ্ঠান ফ্লোরা লিমিটেড এবং স্মার্ট টেকনোলজিস বিডি লিমিটেড।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, এইচপির এশিয়া ইমার্জিং কান্ট্রিজের এইসি চ্যানেল সেলস ম্যানেজার মো. ইমরুল হোসাইন ভূঁইয়া।

স্মার্ট টেকনোলজিস বিডি লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক মুজাহিদ আল বেরুনী সুজন বলেন, বাংলাদেশে এইচপির নতুন আরেকটি অধ্যায় শুরু হলো। কারণ এইচপি বিশ্বের মধ্যে এমন একটি ব্র্যান্ড যারা সব সময় কাস্টমারদের অল্প খরচে অনেক ভালো মানের পণ্য উপহার দেওয়ার চেস্টা করে। যা সত্যিকারের কাস্টমার বান্ধব হয়।

তিনি বলেন, এইচপির নতুন প্রিন্টারদুইটিতে পরিবর্তনযোগ্য প্রিন্ট হেড রয়েছে। যেটি ফিক্সড প্রিন্ট হেডের তুলনায় সুবিধাজনক। এছাড়াও প্রিন্টার দুইটির সেটআপ ও কালি সেটআপ নিতে ১০ মিনিটেরও কম সময় নেয়। এছাড়াও নতুন এ প্রিন্টারগুলোও ইউজার ফ্রেন্ডলি। যা সহজেই অপারেট করা যাবে। যা দিয়ে কম খরচে অধিক প্রিন্ট করা যাবে।’

ফ্লোরা লিমিটেড ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোস্তাফা সামছুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা ২৫ বছর যাবত এইচপির সাথে কাজ করি। বিশ্বে নতুন নতুন ইনোভেশনের ক্ষেত্রে এইচপি অনেক এগিয়ে। কাস্টমার বান্ধব প্রযুক্তিতে বেশি আগ্রহি এইচপি। নতুন উদ্ধোধন করা প্রিন্টার গুলো ব্যবাহারকারী বান্ধব। আমরা দেশের মানুষের জন্য এটি আনতে পেরে হ্যাপি।’

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, এই প্রিন্টার দুটি থেকে দ্রুত পিন্ট দেয়া সম্ভব। এতে এলইডি ডিসপ্লে থাকায় পিন্ট কমান্ড দেয়া সহজ। এইচপি ডেস্কজেট জিটি সিরিজের প্রিন্টারটিতে ৮০০০ পেজ প্রিন্ট দেয়া সম্ভব। এতে ব্যবহৃত এইচপির মূল রঙ কালো ও রঙিন কালির সহযোগিতায় স্পষ্ট ও ভাইব্রান্ট গ্রাফিক্স ও পানিরোধী ছবি প্রিন্ট দেয়া সম্ভব।

এই প্রিন্টার দুইটির আরেকটি ফিচার হলো স্মার্টফোনের অ্যাপের মাধ্যমে প্রিন্ট দেয়া সম্ভব।

প্রযুক্তিকথন/তুষার/

Related posts

Leave a Comment