অাবারও পুরস্কার পেলো ক্যামেরা ফোন হুয়াওয়ে পি১০

সম্প্রতি ইউরোপিয়ান ইমেজ এ্যান্ড সাউন্ড অ্যাসোসিয়েশন (ইসা) থেকে দুটি সম্মাননা পেলো হুয়াওয়ে কনজ্যুমার বিজনেস গ্রুপ (সিবিজি)। অত্যাধুনিক ক্যামেরার জন্য ‘ইআইএসএ স্মার্টফোন ক্যামেরা ২০১৭-২০১৮’ ক্যাটাগরিতে পুরস্কৃত হয়েছে হুয়াওয়ে পি১০ স্মার্টফোনটি। এ নিয়ে টানা পঞ্চমবারের মতো ইআইএসএ পুরস্কারে ভূষিত হলো হুয়াওয়ের পি সিরিজটি। এছাড়া হুয়াওয়ে ওয়াচ ২ পেয়েছে ‘ইআইএসএ ওয়্যারেবল ডিভাইস ২০১৭-২০১৮’ পুরস্কার।

দৃষ্টি-নন্দন, ক্ষমতাসম্পন্ন ও পুরস্কার পাওয়ার যোগ্য এমন সব ডিভাইস তৈরির পূর্ব অভিজ্ঞতা এবং ডিভাইসে সর্বোচ্চ মান বজায় রাখা ও কার্যকারিতার বিচারে প্রতিশ্রুতির ফলস্বরূপ উক্ত পুরস্কারে ভূষিত হয়েছে হুয়াওয়ে।

কনজ্যুমার ইলেক্ট্রনিক্স নিয়ে ইসার-এর সদস্য যারা মিডিয়াতে প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করে তারা সবাই হুয়াওয়ের উন্নতমানের সব ডিভাইসগুলোর ব্যাপারে প্রশংসা করেছে। সর্বপ্রথম ২০১৩ সালে হুয়াওয়ে পি৬ ‘বেস্ট কনজ্যুমার স্মার্টফোন’ ক্যাটাগরিতে পুরস্কৃত হওয়ার পর থেকে টানা চার বছর সেরা হার্ডওয়্যার, দৃষ্টি-নন্দন নকশা ও সহজ ইউজার ইন্টারফেসের কারণে পি সিরিজটি পুরস্কার পেয়েছে।

এ বছর লাইকার সঙ্গে মিলে অসাধারণ ক্যামেরা যুক্ত করায় প্রথমবারের মতো বিশেষভাবে পুরস্কৃত হয়েছে হুয়াওয়ে পি১০। ‘ইসা স্মার্টফোন ক্যামেরা ২০১৭-২০১৮’ ক্যাটাগরিতে উক্ত মডেলটিকে পুরস্কৃত করা হয়েছে। মোবাইল ফটোগ্রাফিকে দৃষ্টি-নন্দন উপায়ে সৃষ্টিশীল করতে পি সিরিজের স্মার্টফোনগুলোতে ব্যবহার করা হয়েছে উন্নতমানের ক্যামেরা, আর পি ১০-এর ক্যামেরা পূর্বের সব অভিজ্ঞতাকে হার মানিয়েছে।

হুয়াওয়ে কনজ্যুমার বিজনেস গ্রুপের চিফ মার্কেটিং অফিসার গ্লোরী ঝ্যাং বলেন, “সৃষ্টিশীল কিছু তৈরি করার লক্ষে নিরলসভাবে কাজ করাই হুয়াওয়ের মূলমন্ত্র, যার ফলশ্রুতিতে বিশ^ব্যাপি গ্রাহকরা আমাদের ভালোবেসে যাচ্ছে। ইসার কাছ থেকে হুয়াওয়ে পি১০ ও হুয়াওয়ে ওয়াচ টু সম্মানজনক পুরস্কারে পুরস্কৃত হওয়ায় আমরা অত্যন্ত আনন্দিত ও উৎফুল্ল বোধ করছি। স্মার্টফোন থেকে শুরু করে পরিধানযোগ্য ডিভাইস তৈরির ক্ষেত্রে আমরা সবরকম সীমাবদ্ধতা আরো দূরে ঠেলে দিয়ে অভিনব প্রযুক্তি তৈরির মাধ্যমে বিশে^র মানুষকে যুক্ত করতে ধারাবাহিকভাবে কাজ করে যাবো।”

হুয়াওয়ে পি১০এর জন্য ইসা স্মার্টফোন ক্যামেরা ২০১৭-২০১৮-এর কৃতিত্বের স্বীকৃতিস্বরূপ উদ্ধৃত বাক্য

সবদিক থেকেই হুয়াওয়ের নতুন ফ্ল্যাগশীপ ডিভাইসটিতে ব্যাপক উন্নতি লক্ষ করা গিয়েছে। হ্যান্ডসেটটির ডায়মন্ড কাটিং নকশার চেসিস ও নতুন সব রং থেকে শুরু করে দ্রুতগতির ও অধিক নিরাপদ কিরিন ৯৬০ অক্টা-কোর চিপসেট এবং লাইকা ব্র্যান্ডেড ক্যামেরা বিশেষভাবে নজর কেড়েছে। এছাড়া ব্যাক ক্যামেরার ডুয়েল লেন্সের ২০ মিলিয়ন পিক্সেলের মনোক্রম সেন্সর ও ১২ মিলিয়ন পিক্সেলের কালার সেন্সরের সঙ্গে রয়েছে নতুন পোর্ট্রেট মোড যা দিয়ে অসাধারণ পোর্ট্রেট ছবি তোলা সম্ভব। লাইকার আট মিলিয়ন পিক্সেলের সেন্সরে রয়েছে এফ১.৯ প্রযুক্তিবিশিষ্ট সেলফি ক্যামেরা যা দিয়ে অনায়াসে পোর্ট্রেট মোডে ছবি তোলার পাশাপাশি বেশি মানুষ নিয়ে সেলফি তোলার ক্ষেত্রে স্বয়ংক্রীয়ভাবে ওয়াইডার শটও নেয়া যাবে। আরো পেশাদার ফটোগ্রাফির জন্য হুয়াওয়ে পি১০ প্লাস ব্যবহারের ব্যাপারে উপদেশ দিয়েছে ইআইএসএ।

প্রযুক্তিকথন/ডেস্ক/

Related posts

Leave a Comment