ওয়ালটন ‘প্রিমো জিএম২’ উন্নত সংস্করণ বাজারে

শক্তিশালী ব্যাটারির সাশ্রয়ী স্মার্টফোন ওয়ালটনের ‘প্রিমো জিএম২’। ৪ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার লি-পলিমার ব্যাটারির ফোনটি গত ঈদুল ফিতরে বাজারে ছাড়ে ওয়ালটন। এবার ঈদুল আজহা উপলক্ষ্যে ব্যাপক ক্রেতাসমাদৃত ফোনটির উন্নত সংস্করণ এনেছে ওয়ালটন। ‘প্রিমো জিএম২ প্লাস’ মডেলের নতুন সংস্করণে বাড়ানো হয়েছে র‌্যাম, স্টোরেজ এবং ক্যামেরা। ফলে আগের চেয়ে বেড়েছে এর গতি ও পারফরমেন্স।

ওয়ালটনের সেল্যুলার ফোন গবেষণা ও উন্নয়ন বিভাগের ডেপুটি ডিরেক্টর আরিফুল হক রায়হান জানান, নতুন মডেলে র‌্যাম বাড়িয়ে ২ গিগাবাইট করা হয়েছে। ইন্টারনাল স্টোরেজ রাখা হয়েছে ১৬ গিগাবাইট। যা মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে ৬৪ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। ফলে অনেক বেশি ছবি, ভিডিও, ডকুমেন্টস ইত্যাদি সংরক্ষণ করা যাবে।

গ্রাহকের জীবনের রঙ্গিন ও স্মরণীয় সব মুহূর্ত ফ্রেমবন্দি করতে ‘প্রিমো জিএম২ প্লাস’ ফোনের পেছনে রাখা হয়েছে এলইডি ফ্ল্যাশসহ বিএসআই সেন্সরযুক্ত ১৩ মেগাপিক্সেলের অটোফোকাস ক্যামেরা। পেছনের ক্যামেরায় ফুল এইচডি মানের ভিডিও করা যাবে। এছাড়া ভালো মানের সেলফি তোলার জন্য এই স্মার্টফোনের ফ্রন্টে থাকছে বিএসআই সেন্সরযুক্ত ৫ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। সামনের ক্যামেরায় এলইডি ফ্ল্যাশ থাকায় অন্ধকার বা অল্প আলোতেও নিঁখুত ও স্পষ্ট সেলফি পাওয়া যাবে। ক্যামেরায় নরমাল মোড ছাড়াও থাকছে ফেস বিউটি, ফেস ডিটেকশন, ডিজিটাল জুম, সেলফ-টাইমার, প্যানোরমা, সিন ও শুটিং মোডে ছবি তোলার সুবিধা।

‘প্রিমো জিএম২ প্লাস’হ্যান্ডসেটে ব্যবহৃত হয়েছে ৫ ইঞ্চির অন সেল এইচডি আইপিএস ডিসপ্লে। ১৬ মিলিয়ন কালার সাপোর্টেড ১২৮০ বাই ৭২০ রেজুলেশনের পর্দা থাকায় এই ফোনে ছবি ও ভিডিওর মান হবে আরো স্পষ্ট ও জীবন্ত। এছাড়াও, ২.৫ডি কার্ভড গ্লাস ডিসপ্লে প্যানেল থাকায় স্ক্রিন টাচে গ্রাহক আরো বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করবেন।

নতুন এই ফোনে আছে ১.৩ গিগাহার্জের কোয়াডকোর প্রসেসর। যা দেবে প্রয়োজনীয় গতি। প্রাণবন্ত ভিডিও ও গেমিং অভিজ্ঞতা দিতে গ্রাফিক্স হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে মালি-৪০০।

কাক্সিক্ষত পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য এই ফোনেও থাকছে ৪ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। ফলে চার্জ থাকবে দীর্ঘক্ষণ। প্রয়োজনীয় কাজ, গেম খেলা বা বিনোদনে থাকা যাবে নিশ্চিন্ত। ইন্টিগ্রেটেড ব্যাটারি সেভার ফিচার ব্যাটারিকে ভালো রাখবে। সাশ্রয় করবে চার্জ।

ডুয়াল সিম সুবিধার ফোনটি থ্রিজি নেটওয়ার্ক সমর্থন করে। অ্যান্ড্রয়েড নূগাট ৭.০ অপারেটিং সিস্টেমে পরিচালিত ফোনটিতে বিশেষ ফিচার হিসেবে আছে মিরা ভিশন টেকনোলজি। ফলে ছবি ও ভিডিওর কালার হবে ভাইব্রান্ট ও বৈচিত্রময়। মাল্টি-উইন্ডো প্রযুক্তি থাকায় একই সঙ্গে ডিসপ্লেতে একাধিক অ্যাপস ব্যবহার করা যাবে।

কানেক্টিভিটির জন্য রয়েছে ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ ভার্সন ৪, মাইক্রো ইউএসবি ২, ল্যান হটস্পট, ওটিএ ও ওটিজি। মাল্টিমিডিয়া ফিচার হিসেবে আছে ফুল এইচডি ভিডিও প্লে-ব্যাক ও রেকডিং সুবিধাসহ এফএম রেডিও।

ওয়ালটন সেল্যুলার ফোন বিপণন বিভাগের প্রধান আসিফুর রহমান খান জানান, ক্রেতাদের রুচি ও চাহিদার ভিন্নতা অনুযায়ী সুদৃশ্য ডিজাইনের ফোনটি কালো, সোনালি ও কফি- এই তিনটি আকর্ষণীয় রঙে ছাড়া হয়েছে। সারা দেশে বিস্তৃত ওয়ালটন প্লাজা ও ব্র্যান্ড আউটলেটে পাওয়া যাচ্ছে ‘প্রিমো জিএম২ প্লাস’ মডেলের স্মার্টফোন। যার দাম ধরা হয়েছে ৮ হাজার ৩৫০ টাকা। এতে থাকছে ১ বছরের বিক্রয়োত্তর সেবা।

উল্লেখ্য, গ্রাহকদের জন্য ওয়ালটন প্রতিনিয়ত বাজারে ছাড়ছে উচ্চ গুণগতমান ও অত্যাধুনিক ফিচারসমৃদ্ধ নতুন নতুন মডেলের স্মার্টফোন। দেশের সকল ওয়ালটন প্লাজা ও ব্র্যান্ড আউটলেটে ০% ইন্টারেস্টে ৬ মাসের ইএমআই সুবিধায় কেনা যায় যেকোনো মডেলের ওয়ালটন স্মার্টফোন। রয়েছে ১২ মাসের কিস্তি সুবিধাও।

প্রযুক্তিকথন/ডেস্ক/

Related posts

Leave a Comment