ফোন তুলে ‘হ্যালো’ সবাই বলে কিন্তু কেন ?

ফোন রিসিভ করে প্রথমে সবাই ‘হ্যালো’ বলে। কিন্ত হ্যালো কেন বলা হয়, তা কি আমরা জানি! হ্যালো বলার পেছেন একটি রহস্য রয়েছে।

হ্যালো একটি মেয়ের নাম। তার পুরো নাম মার্গারেট হ্যালো ( Margaret Hello)। তিনি আর কেউ নন,  বিখ্যাত বিজ্ঞানী আলেক্সান্ডার গ্রাহাম বেলের গার্লফ্রেন্ড।

টেলিফোনের আবিস্কারক গ্রাহাম বেল। আবিস্কারের পর তিনি প্রথম পরীক্ষামূলকভাবে ফোন দেন তাঁর গার্লফ্রেডকে। ওই সময় তিনি যে কথাটি বলেন তা হচ্ছে, ‘হ্যালো’। কিন্তু ‘হ্যালো’ হলো তাঁর নাম।

সেই থেকেই ‘হ্যালো’ বলে ফোনে কথা বলার প্রচলন শুরু। মানুষ গ্রাহাম বেলকে ভুলে যেতে পারে, কিন্তু তাঁর ভালোবাসার মানুষটিকে নয়। আজও মানুষ ফোনে প্রথম কথায় আবিষ্কারকের প্রথম কথাটি বলে নিজের অজান্তেই তাকে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে আসছেন।

প্রযুক্তিকথন//ডেস্ক/