ধর্ষণ ঠেকাবে সফটওয়্যার!

বিশ্বে ধর্ষণের পরিমাণ দিন দিন বেড়েই চলেছে। কখনো সেই ঘটনায় মামলা দায়ের হয় আবার কখনো হয় না। নানাভাবে এই অপরাধকে সাময়িকভাবে রুখতে পারলেও স্থায়ীভাবে থামানো যাচ্ছে না এই অপরাধকে। তবে এই ধর্ষণকে রুখতে ভারতীয় এক ইঞ্জিনিয়ার তৈরি করেছেন বিশেষ এক ধরনের সেন্সর।

বর্তমানে ম্যাসাচুসেটস ইন্সটিটিউট অফ টেকনোলজিতে গবেষণা করছেন মনীষা মোহন। সেখানেই তিনি এক বিশেষ ধরনের সেন্সর তৈরি করেছেন, যা ধর্ষণ কিংবা শ্লীলতাহানির মত ঘটনা রুখতে পারবে।

অনেক সময়েই আক্রমণের শিকার হলে কোনও মহিলা পরিচিতদের ফোন করার মত পরিস্থিতিতে থাকেন না। অথবা আক্রমণকারীকে প্রত্যাঘাত করার মত অবস্থায় থাকেন না। কিন্তু অজ্ঞান অবস্থাতে আক্রমণ করলেও এই সেন্সর কাজ করবে এবং অন্যদের কাছে খবর পৌঁছে দেবে।

এই সেন্সর পোশাকের সঙ্গেই লাগানো থাকবে। দুটি মুডে কাজ করতে পারবে এই সেন্সর। একটি হল প্যাসিভ মুড, যেখানে, নির্যাতিতা নিজেই একটি বাটন প্রেস করলে পরিচিতদের কাছে ফোন চলে যাবে। আর একটি হল অ্যাকটিভ মোড। যাতে, ওই সেন্সর নিজেই সিগন্যাল খুঁজে নেবে।

ভারতীয় গণমাধ্যমে উদাহরণস্বরূপ মনীষা জানিয়েছেন, যদি কোনও মেয়ের পোশাক খোলা হয়, তাহলে মেসেজ যাবে তার পরিবারের কাছ। ওই ঘটনায় মেয়ের অনুমতি রয়েছে কিনা তা জিজ্ঞাসা করার অপশন রয়েছে। কিন্তু ৩০ সেকেন্ডের মধ্যে রিপ্লাই না এলেই জোরে অ্যালার্ম বাজতে শুরু করবে। যদি নির্যাতিতা নিজে একটি পাসওয়ার্ড দিয়ে অ্যালার্ম না থামান, তাহলে সেটি থামবে না। পরিবারের কাছে নির্যাতিতার অবস্থানও পৌঁছে যাবে, গুগল ম্যাপের সাহায্যে তাঁকে খুঁজে নেওয়া যাবে।

 

Related posts

Leave a Comment