শরীরচর্চার জন্য স্মার্ট স্কেল অানল হুয়াওয়ে

হাতে পরিধানযোগ্য ডিভাইস কালার ব্যান্ড এ-টু এবং শরীরচর্চার ক্ষেত্রে সহযোগি টুল স্মার্ট স্কেল বাংলাদেশের বাজারে আনলো বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় প্রযুক্তি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে।

তরুণদের কাছে দিন দিন বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে স্মার্টব্যান্ড। কারণ এর মাধ্যমে শুধু ঘড়ি না স্বাস্থ্য সংক্রান্ত বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ও স্মার্টফোনের গিয়ার হিসেবে ব্যবহার করা যায়। এক্ষেত্রে সাশ্রয়ী মূল্যে বেশ চমৎকার কিছু ফিচার নিয়ে কালার ব্যান্ড এ-টু বাজারে এনেছে হুয়াওয়ে। ডিভাইসটি ব্যবহার করতে হলে নির্দিষ্ট চার্জিং ডকে বসিয়ে চার্জ দেয়ার পর এটি চালু করতে হবে। চালু করার পর হুয়াওয়ে ওয়্যার অ্যাপের সঙ্গে ডিভাইসটি পেয়ার করতে হবে। চালু হয়ে গেলে নিজ থেকেই টাইম সেটিং হয়ে যাবে ও ব্যবহারকারীর হৃদস্পন্দন এবং হাঁটা-চলার দিকে পূর্ণ পর্যবেক্ষণ করবে স্মার্টব্যান্ডটি। ব্যায়াম, ঘুম, হাঁটাচলা ও হৃদস্পন্দনের দিকে নজর রাখা ছাড়াও ব্লুটুথ সংযোগের মাধ্যমে ফোনের নোটিফিকেশনও এর ওএলইডি প্রযুক্তির ডিসপ্লেতে দেখা যাবে। এছাড়া অ্যালার্মের সঙ্গে ডিভাইসটি ভাইব্রেট করবে, দীর্ঘসময় বসে থাকলে উঠে কিছুক্ষণ চলাফেরা করার জন্যও এটি মনে করিয়ে দেবে। ডিভাইস তৈরিতে ধাতব ফ্রেম ব্যবহার করা হয়েছে। ডিভাইসটির সামনের পুরোটা জুড়ে রয়েছে গরিলা গ্লাস। স্মার্টব্যান্ডটির পেছনে রয়েছে হার্ট রেট সেন্সর ও চার্জিং পিন। ডিভাইসটি নিয়ন্ত্রণ করা যাবে ব্লুটুথের মাধ্যমে মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করে। পানি ও ধূলোবালিরোধক ডিভাইসটি তৈরি করা হয়েছে মানসম্মতভাবে। একবার ফুল চার্জ দিলে ডিভাইসটি দীর্ঘ দিন ব্যবহার করা যায় এবং এক ঘন্টারও কম সময়ে এটি সম্পূর্ণ চার্জ হয়ে যায়। দেশের বাজারে এটি ২,৫৯০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে।

অন্যদিকে, চীন ইন্সটিটিউট অব স্পোর্ট সায়েন্স (সিআইএসএস)-এর সহায়তায় হুয়াওয়ে স্পোর্টস এ্যান্ড হেল্থ ল্যাব তৈরি করেছে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির হুয়াওয়ে স্মার্ট স্কেল। মোট ৯টি তথ্য যেগুলোর মধ্যে আছে ওজন, শরীরিক স্থুলতা, বিএমআই, মাস্ল মাস, শরীরে পানির পরিমাণ, বোন মাস, প্রোটিন, শরীরের ক্ষতিকর চর্বি এবং বিএমআর পর্যালোচনা করে স্মার্টফোনে অ্যাপের মাধ্যমে একটি বিশেষায়িত ফলাফল প্রদান করতে সক্ষম হুয়াওয়ে স্মার্ট স্কেল। উল্লেখ্য, ব্লুটুথের মাধ্যমে স্মার্টফোনের সঙ্গে যুক্ত করা যায় হুয়াওয়ে স্মার্ট স্কেল। টেম্পার্ড গ্লাস প্যানেল, সম্পূর্ণ সাদা রং-এর সমন্বয়ে তৈরি করা হয়েছে এটি। এছাড়া চমৎকার স্মার্ট অ্যালার্ম ক্লক সুবিধা রয়েছে এতে। সর্বনিম্ম পাঁচ কেজি থেকে সর্বোচ্চ ১৫০ কেজি পর্যন্ত ওজন মাপতে সক্ষম এ টুলটির দাম মাত্র ৩,০০০ টাকা।

এ প্রসঙ্গে হুয়াওয়ে কনজ্যুমার বিজনেস গ্রুপ (বাংলাদেশ)-এর ডেপুটি কান্ট্রি ডিরেক্টর জিয়াউদ্দিন চৌধুরী বলেন, “স্মার্টফোনের পাশাপাশি স্মার্ট ডিভাইসের প্রতি মানুষের আগ্রহ প্রতিনিয়ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রযুক্তির উৎকর্ষতায় নিয়মিত অত্যাধুনিক ডিভাইস গ্রাহকদের জন্য নিয়ে আসার ব্যাপারে আমরা দৃঢ়-প্রতিজ্ঞ, আর এরই ধারাবাহিকতায় হুয়াওয়ে কালার ব্যান্ড এ-টু এবং স্মার্ট স্কেলের উদ্ভাবন। আমরা আশা করছি বাংলাদেশের মানুষ স্মার্ট ডিভাইস দুটি পছন্দ করবে।

দেশব্যাপি ৬৪টি জেলার সকল হুয়াওয়ে ব্র্যান্ড শপ থেকে হুয়াওয়ে কালার ব্যান্ড এ-টু এবং স্মার্ট স্কেল ক্রয় করা যাবে।

প্রযুক্তিকথন//ডেস্ক/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *