মাত্র তো ফোরজি আসলো, তাহলে কেন ফাইভ জি প্রদর্শনী?

বাংলাদেশ সরকারের ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ এবং মোবাইল নেটওয়ার্ক সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান রবির সহায়তায় প্রথমবারের মতো ফাইভ জি প্রদর্শন করলো প্রযুক্তি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে।

আজ (বুধবার) রাজধানীর প্যানপ্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে ফাইভ জি প্রদর্শনী উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ। এই অনুষ্ঠানের উদ্দেশ্য, ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়নে ফাইভ জি ইকোসিস্টেম কিভাবে কাজ করবে সেটা দেখানো। এছাড়াও বাংলাদেশের অর্থনীতি ও মোবাইল ফোন অপারেটরদের রূপান্তরে ফাইভ জি’র ব্যবহার প্রদর্শন করা হয়।

এখনো ভালো করে ফোরজি মিলে নাই, তাহলে কেন এত দ্রুত ফাইভ-জি প্রদর্শনী? প্রযুক্তিপ্রেমীদের মধ্যে এই নিয়ে ইত্যেমধ্যে শুরু হয়েছে নানা প্রশ্ন। এই প্রশ্নের জবাব দিলে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

ফাইভ জি প্রদর্শনী উদ্বোধনকালে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার সময়ের চেয়ে অনেক দূরে চিন্তা করে বলেই ফোরজি চালু হওয়ার পর দ্রুত সময়ের মধ্যে ফাইভ-জি সেবা নিয়ে আসছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, অনেকেই হয়তো প্রশ্ন করতে পারেন, মাত্র ফেব্রুয়ারিতে ফোরজি চালু হয়েছে তাহলে আজকে কেন ফাইভ-জি সামিট? সেখানে একটাই উত্তর- আওয়ামী লীগ সময়ের চেয়ে আগে চিন্তা করে।

তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু অনেক দূরে দেখতে পেতেন। শেখ হাসিনা সময়ের চেয়ে আগে চিন্তা করেন। সজীব ওয়াজেদ জয় সময়ের চেয়ে আগে পরিকল্পনা করেন।

সেটার প্রমাণ দিতেই ফাইভ-জি সামিটে উপস্থিত হয়েছেন বলেও মন্তব্য করেন জুনাইদ আহমেদ পলক।

জুনাইদ আহমেদ পলক আরও বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ জুন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব বাংলাদেশের ইতিহাসে প্রথমবার আন্তর্জাতিক টেলিকমিউনিকেশনে সংযুক্ত হওয়ার জন্য বেতবুনিয়াতে স্যাটেলাইটের আর্থ স্টেশন স্থাপন করেছিলেন। তার চার দশক পর জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এবং সজীব ওয়াজেদ জয়ের সুপরামর্শে আমরা গত ১১ মে মহাকাশে বঙ্গবন্ধুর নামে স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করেছি।