হাড়ের ক্যান্সারের লক্ষণ

বিভিন্ন ক্যান্সারের নাম জানা থাকলেও হাড় বা বোন ক্যান্সারের সঙ্গে অনেকেই পরিচিত নন। হাড় সংক্রান্ত সমস্যায় পড়লে কোনও ভাবে আঘাত লেগেছে বলে মনে করেন অনেকে। কিন্তু অনেকসময় এভাবেই ধীরে ধীরে শরীরে বিস্তৃতি লাভ করে হাড়ের ক্যান্সার। এটা হয়তো এমন সময় ধরা পড়ে যখন আর করার কিছুই থাকে না। এ কারণে হাড়ের ক্যান্সারের কিছু উপসর্গ বা লক্ষণ জেনে রাখা জরুরি।যেমন-

১. আঘাত না পেলেও হাড়ে ব্যথা হওয়ার পাশাপাশি যদি ব্যথা হওয়ার স্থান অনেকটা ফুলে যায়, বিশেষ করে অস্থিসন্ধির স্থান ফুলে যায়, তাহলে এটি সাধারণ হাড়ের সমস্যা নাও হতে পারে। এ ছাড়া ফুলে যাওয়া স্থানে যদি গোটার মতো কোনও কিছু অনুভূত হয় তাহলেও সতর্ক হওয়া উচিত। এরকম হলে চিকিৎসকের মতামত নেওয়া জরুরি।

২. প্রচণ্ড ব্যথা পেলেই যে হাড়ে ব্যথা হবে এমন নাও হতে পারে। হাড়ের ক্যান্সারের প্রাথমিক লক্ষণ হচ্ছে হাড়ে ব্যথা হওয়া। এই ব্যথা একটানা হয় না। হঠাৎ করেই শুরু হয়, আবার বন্ধও হয়ে যায়। রাতের বেলা ব্যথা শুরু হওয়া, ভারী কোনও জিনিস তোলার পর ব্যথা হওয়া বা হাঁটার ফলে হাড়ে ব্যথা হওয়া ইত্যাদি হতে পারে হাড়ের ক্যান্সারের লক্ষণ। এ কারণে হাড়ের ব্যথা অবহেলা করা ঠিক নয়।

৩. হাড় এমনিতে অনেক মজবুত, সহজে ভাঙে না। কিন্তু হাড়ের ক্যান্সার হওয়ার ফলে হাড়ের ভেতরে ক্ষয় হতে থাকে এবং হাড় ভঙ্গুর হয়ে পড়ে। এতে সাধারণ কাজ যেমন- ওঠা বা বসার সময়, হাঁটু গেঁড়ে বসার সময় বা অনেক সাধারণ কারণেও অনেক সময় হাড় ভাঙা বা হাড় ফ্র্যাকচার হওয়ার মতো ঘটনা ঘটতে পারে।

৪. এই সব লক্ষণের পাশাপাশি আরও কিছু সাধারণ লক্ষণ যেমন- অতিরিক্ত দুর্বলতা অনুভব করা, কোনো কারণ ছাড়া ওজন কমতে থাকা, ঘন ঘন ও অতিরিক্ত জ্বর হওয়া, রক্তশূন্যতা দেখা দেওয়া ইত্যাদি সমস্যা প্রকাশ পায় তাহলে অবশ্যই বিশেষজ্ঞর পরামর্শ নেওয়া উচিত।

তবে এসব সমস্যা দেখা দিলেই যে হাড়ের ক্যান্সার হবে এমন কোনও কথা নেই। অনেকসময় আর্থ্রাইটিস, মাংসপেশী বা লিগামেন্ট ইনজুরিতে ভূগলেও এ ধরনের কিছু লক্ষণ দেখা দিতে পারে। তবে এ ব্যাপারে চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়েই নিশ্চিত হওয়া উচিত। সূত্র : জি নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *