00

QR কোড কি তা কমবেশি প্রায় সবাই জানেন। QR কোডের পূর্ণ রূপ হল Quick Response Code. এর সাহায্যে যেকোন এনক্রিপ্টেড তথ্য খুব সহজে সংরক্ষণ ও দ্রুত এক্সেস করা যায় বলে এর নাম দেয়া হয়েছে QR কোড. QR কোড হল এক ধরণের দ্বিমাত্রিক বার কোড। পণ্যের দাম, বিভিন্ন প্রমোশোনাল অফার বা অল্প জায়গায় অনেক বেশি তথ্য সংরক্ষণের জন্যই মূলত QR কোড ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

QR কোড আবার দু ধরণের হয়ে থাকে যার একটি ডাইনামিক: যে QR কোড তৈরি হয়ে যাবার পরেও তার ভেতরের তথ্য পরিবর্তন করা যায় তাকে ডাইনামিক QR কোড ও যে QR কোড তৈরি হয়ে যাবার পরে তার ভেতরের কোন তথ্য পরিবর্তন করা যায় না তাকে স্ট্যাটিক QR কোড বলে।

✅ কেন QR কোড ব্যবহার করবেন?

ধরুন আপনার একটি কোম্পানি আছে যার কাজ হল বদনা তৈরি করা। মনে করুন আপনার কোম্পানি বিভিন্ন দামের বদনা তৈরি করে থাকে এবং কিছু দিন পর পরই ঐসব বদনার দাম বেড়ে যায়। ধরুন প্রতিটি বদনার গায়ে আপনি তার দাম প্রিন্ট করে লিখে দিয়েছেন। এতে যখন বদনার দাম বেড়ে যাবে তখন কিন্তু বদনার গায়ে ঐ আগের দামই লিখা থাকবে। এমন হলে কেমন হত যে, ধরুন: আপনার কোম্পানি বদনার দাম ৪০ টাকা থেকে ৫০ টাকা করে দিয়েছে আর অটোমেটিক্যালি আগের সকল বদনার গায়ে থাকা ৪০ টাকা মূল্য চেঞ্জ হয়ে ৫০ টাকা হয়ে গিয়েছে। ভাবছেন এটাও কি সম্ভব? জ্বি… QR কোডের মাধ্যমে খুব সহজেই এটা করতে পারবেন।

এবার ধরুন আপনার একটি লোকাল বিজনেস আছে। তো আপনি কাস্টমারদের একটি অতি লোভনীয় অফার দিয়েছেন। কেউ যদি উক্ত অফারটি গ্রহণ করতে চায় তাহলে তাকে BCoffer লিখে এই 017610***77 নম্বরে SMS পাঠাতে হবে। এখন আপনার কোন কাস্টমার যদি এই অফারটি নিতে চায় তাহলে তাকে ম্যাসেজ অপশনে গিয়ে sms টাইপ করে পাঠাতে হবে। এমন হলে কেমন হত যে, ধরুন: আপনার কাস্টমার আপনাকে SMS ঠিকই পাঠালো কিন্তু ম্যাসেজ অপশনে গিয়ে তাকে কিছুই টাইপ করতে হল না। ভাবছেন এটাও কি সম্ভব? জ্বি… QR কোডের মাধ্যমে খুব সহজেই এটা করতে পারবেন।

অথবা মনে করুন আপনি একদিন রাস্তায় এক্সিডেন্ট করে অজ্ঞান হয়ে পড়ে আছেন। আপনার পরিচয় সনাক্ত করার জন্য একজন পথচারী আপনার প্যান্টের পকেট থেকে ফোনটি বের করে দেখলো সেটির সিম সহ সবকিছুই ভেঙ্গে চুরমার হয়ে গিয়েছে। তারপর প্যান্টের পেছন পকেট থেকে মানিব্যাগ বের করে দেখল সেখানে আপনার ছবি ও পাশে ছোট্ট একটি QR কোড বসানো আছে। কেউ একজন সেটি তার মোবাইল দিয়ে স্ক্যান করে আপনার পিতামাতার ফোন নাম্বার, ঠিকানা সহ যাবতীয় তথ্য দেখতে পেল। এরপর আপনাকে গন্তব্যে পৌঁছে দিল। QR কোডের এই ব্যবহারের ব্যাপারটা নিশ্চয় আপনার পছন্দ হবে তাই না?

একইভাবে ধরুন আপনি আপনার ব্যবসায়িক কাজের জন্য ভিজিটিং কার্ড বা Business Card বানিয়েছেন। আপনি চাচ্ছেন ব্যবসা সংশ্লিষ্ট অনেকগুলো তথ্য এই ভিজিটিং কার্ডে লিখে রাখবেন কিন্তু এতো তথ্য রাখার মত জায়গা নেই। কেমন হয় যদি সেই অল্প জায়গার মধ্যেই ইচ্ছেমত যতখুশি তথ্য রাখতে পারেন? ভাবছেন এটাও কি সম্ভব? জ্বি… QR কোডের মাধ্যমে খুব সহজেই এটা করতে পারবেন। এছাড়াও আপনার কাস্টমার আপনাকে কল করবে কিন্তু নম্বর টাইপ করতে হবে না, আপনার ফোন নাম্বার কেউ কন্টাক লিস্টে সেভ করবে কিন্তু নাম ঠিকানা ফোন নাম্বার অটোমেটিক টাইপ হয়ে যাবে, বিভিন্ন ওয়েব সাইটের লিংক ব্রাউজারে টাইপ না করেই ভিজিট করার জন্য বা নাম্বার টাইপ না করেই বিকাশের মাধ্যমে ক্যাশ আউট করার জন্য QR কোড ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

✅ কিভাবে QR কোড তৈরি করবেন ফ্রি’তে?

QR কোড তৈরি করার জন্য অনেক সফটওয়্যার, অ্যাপ বা ওয়েবসাইট রয়েছে। তবে আমার কাছে QR কোড তৈরির সব চেয়ে সেরা ওয়বসাইট হল TheQR Code Generator. এই ওয়েব সাইট থেকে আপনি ফ্রিতে QR কোড তৈরি করতে পারবেন। স্ট্যাটিক QR কোডের পাশাপাশি ডাইনামিক QR কোড তৈরির ব্যবস্থাও এই ওয়েবসাইটে আছে। আপনার ডাইনামিক QR কোড কে কে স্ক্যান করে তথ্য দেখেছে সেগুলো ট্র্যাকও করতে পারবেন এই ওয়েবসাইট থেকে। ওহ আপনাদেরকে তো ডাইনামিক আর স্ট্যাটিক QR কোড সম্পর্কে বিস্তারিত বলাই হয় নি। তাহলে চলুন একটু বিস্তারিত বলি এগুলো নিয়ে।

✅ ডাইনামিক QR কোড কি?

আগেই বলেছিলাম, যে QR কোড তৈরি হয়ে যাবার পরেও তার ভেতরের তথ্য পরিবর্তন করা যায় তাকে ডাইনামিক QR কোড বলে। ধরুন আপনার কোম্পানির বদনার দাম ৪০টাকা, এই কথাটি লিখে QR কোড বানিয়ে তা বদনার গায়ে সিল মেরে দিয়েছেন। ধরুন বদনা বিক্রির জন্য বাজারে পাঠানো হয়ে গিয়েছে, এমন সময় আপনি বদনার দাম বাড়িয়ে দিলেন। আর ঐ বদনার গায়ের আগের QR কোডই কেউ স্ক্যান করে দেখলো যে বদনার দাম ৫০ টাকা হয়ে গিয়েছে। খেয়াল করুন এখানে কিন্তু QR কোড একই রয়েছে, কিন্তু স্ক্যান করলে আগের দাম না দেখিয়ে বর্তমানের দাম দেখাচ্ছে। এটিই হল ডাইনামিক QR কোডের উদাহরণ। ডাইনামিক QR কোডের তথ্য দেখতে হলে মোবাইলে অবশ্যই ইন্টারনেট কানেকশন থাকতে হবে।

✅ ডাইনামিক QR কোড কিভাবে কাজ করে?

আপনি যখন কোন ডাইনামিক QR কোড স্ক্যান করেন মোবাইল দিয়ে তখন আপনাকে একটি ওয়েবসাইটের লিংক দেখায়, যেখানে ক্লিক করলে QR কোডে থাকা বিস্তারিত লিখা দেখা যায়। তারমানে ডাইনামিক QR কোডের ভেতরে সংরক্ষিত সকল তথ্য কোন ওয়েবসার্ভারে সংরক্ষিত থাকে। যখন কেউ উক্ত ওয়েবসার্ভারে থাকা তথ্য চেঞ্জ করে দেয়, তখন কেউ উক্ত QR কোড স্ক্যান করলে ঐ একই ওয়েবসার্ভারে থাকা পরিবর্তিত হয়ে যাওয়া তথ্য দেখা যায়। ডাইনামিক QR কোডের সকল তথ্য যেহেতু ওয়েবসার্ভারের লিংকের মাধ্যমে সংরক্ষিত হয় সেহেতু ডাইনামিক QR কোড দেখতে অনেকটা কম ঘন দেখায়।

✅ স্ট্যাটিক QR কোড কি?

আগেই বলেছিলাম, যে QR কোড তৈরি হয়ে যাবার পরে তার ভেতরের কোন তথ্য পরিবর্তন করা যায় না তাকে স্ট্যাটিক QR কোড বলে। স্ট্যাটিক QR কোডের তথ্য উক্ত QR কোডের প্যাটার্নের মধ্যেই সংরক্ষিত থাকে যার কারণে স্ট্যাটিক QR কোডের তথ্য দেখতে কোন ইন্টারনেট কানেকশন লাগে না। তবে তথ্যের পরিমাণ যত বেশি হবে, স্ট্যাটিক QR কোড দেখতে তত ঘন হবে ও স্ক্যান করতে সমস্যা হবে।

✅ QR কোড স্ক্যানার ডাউনলোড

Google play store এ অনেক অ্যাপ রয়েছে যেগুলোর মাধ্যমে QR কোড স্ক্যান করতে পারবেন। ব্যক্তিগতভাবে আমি QR & Barcode Scanner অ্যাপটি ব্যবহার করি। চাইলে আপনিও ডাউনলোড করতে পারেন। এটির মাধ্যমে আপনি QR কোড এবং Bar code উভয়ই স্ক্যান করতে পারবেন।

আশা করছি এই আর্টিকেলের মাধ্যমে QR কোড সম্পর্কে একটি স্বচ্ছ ধারণা দিতে পেরেছি আপনাদের। QR কোড তৈরি করতে গিয়ে যদি কোন সমস্যাই পড়েন বা এই আর্টিকেলের কোন অংশ যদি বুঝতে না পারেন তাহলে অবশ্যই মন্তব্য করে জানাবেন।

✅ প্রযুক্তি কথন প্রযুক্তি নিয়ে কথা বলে।

বাংলায় প্রযুক্তি নিয়ে একটি মানসম্মত প্লার্টফর্ম গড়ে তোলার প্রয়াসে প্রযুক্তি কথন তৈরি করা হয়েছে, এই শুভ প্রয়াস বাস্তবায়ন করতে আপনার সহায়তা এবং সাপোর্ট অনেক বেশী প্রয়োজন।

প্রযুক্তি কথনের আজকের ফিচারটি যদি আপনার ভালো লেগে থাকে, তাহলে “লাইক” করুন, “কমেন্ট” করুন এবং আপনার বন্ধু-বান্ধব এবং পরিচিতদের সাথে এটি “শেয়ার” করুন।

[ “কথা হোক প্রযুক্তি নিয়ে” ]

Share

Post comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Go Top